ক্যাম্পাসলিড নিউজ

রাবিতে টেবিল মুছাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

রাবি প্রতিনিধি:

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) টেবিল মুছে দেওয়াকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার রাতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের সামনে সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষের ঘটনায় জড়িতরা হলেন, শাহ্ মখদুম হল শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি শামিম সিকদার, সৈয়দ আমির আলী হলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জুয়েল রানা এবং তাদের সহযোগী কয়েকজন। অপর পক্ষে ছিলেন জোহা হল শাখার যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মুস্তাকিম ওয়ালিউর রহমান মুন ও তার সহযোগীরা।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ কামাল স্টেডিয়াম সংলগ্ন সিলসিলা রেস্তোরাঁয় রাতের খাবার খেতে যায় যান শামিম, জুয়েলসহ কয়েকজন। সেখানে আগে থেকে অবস্থান করছিলেন মুন। তিনি শামিমের পেছনে থাকা হোটেল কর্মচারীকে টেবিল মুছে দিতে বলেন। তাকে উদ্দেশ্য করে বলা হয়েছে ভাবেন শামিম। এসময় তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। আশেপাশে থাকা লোকজন ঝামেলা মিটিয়ে দেয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের পাশের দোকানে আসেন শামিম, জুয়েল, তানভীরসহ কয়েকজন। এসময় আবার তাদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া উভয় পক্ষকে ডেকে বিষয়টি মিমাংসা করে দেন।

মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করে অভিযুক্ত শামীম সিকদার বলেন, গতকাল রাতে খাবার হোটেল বসা নিয়ে একটু ঝামেলা হয়েছিল। পরে মুন আমাকে দেখে নেবে বলে হুমকি দেয়। এ নিয়ে বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে হাতাহাতি হয়। তবে কোনো মারধরের ঘটনা ঘটেনি। পরে কিবরিয়া ভাই ডেকে নিয়ে বিষয়টি সমাধান করে দিয়েছেন।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া বলেন, তাদের দুজনের মধ্যে গতকাল রাতে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল। মারামারির কোনো ঘটনা ঘটেনি। আমি গতকাল রাতেই তাদেরকে ডেকে মিমাংসা করে দিয়েছি।

এ সব বিষয়ে জানতে চাইলে ভুক্তভোগী বিশ্ববিদ্যালয়ের শামসুজ্জোহা হল ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাকিম ওলিউর রহমান মুন বলেন, সিলসিলায় আমাদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল। পরে বঙ্গবন্ধু হলের সামনে দোকানে গেলে আমাকে তারা হালকা মারধর করে। তবে এতে আমি গুরুতর আঘাত পাইনি। বিষয়টি জানতে পেরে কিবরিয়া ভাই আমাদেরকে ডেকে বিষয়টি মীমাংসা করে দেন।

সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক বলেন, ঘটনাটি সম্পর্কে জেনেছি। তারা রাতেই নিজেদের মধ্যে মিটমাট করে নিয়েছে। আর এই ঘটনায় আমাদের কাছে কোনো অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

You cannot copy content of this page