ক্যাম্পাসলিড নিউজ

প্রধান প্রকৌশলীকে ছাত্রলীগ কর্মীর মারধর

অচল পুরো চবি ক্যাম্পাস

চবি প্রতিনিধি:

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) প্রধান প্রকৌশলী ও নিরাপত্তা প্রধানকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাজু মুন্সির বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ক্ষোভের বশবর্তী হয়ে প্রায় তিন ঘণ্টা গ্যাস, পানি ও বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রাখে প্রকৌশল দপ্তর।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে সোমবার (২৮ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন, নিরাপত্তা দপ্তর ও কাটা পাহাড় এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। ঘটনায় রেজিস্ট্রার বরাবর পৃথক লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

এরপর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অনুরোধে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়ে দুপুর ২টার দিকে গ্যাস, পানি ও বিদ্যুৎ সরবরাহ চালু করে দেয় প্রকৌশল দপ্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ।

রাজু মুন্সির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনকে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়ে প্রধান প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) ছৈয়দ জাহাঙ্গীর ফজল বলেন, সকাল ১০টায় কাটাপাহাড়ে এবং সাড়ে ১০টায় রেজিস্ট্রার অফিসের সামনে আমার উপর হামলা করেছে ছাত্রলীগ নেতা রাজু মুন্সি। সে বারবার এরকম আচরণ করেই যাচ্ছে। মাস্তানি করছে প্রকৌশল দপ্তরের অফিসে যেয়ে। আমরা এর বিচার চাই। ২৪ ঘন্টার আলটিমেটাম দিয়েছি। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কোন ব্যবস্থা নেয়া না হলে সবকিছু বন্ধ করে দিয়ে আবারও আন্দোলনে মাঠে নামবে প্রকৌশল দপ্তর।

অন্যদিকে, প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা আবদুর রাজ্জাক বলেন, রাজু মুন্সি সোমবার (২৮ আগস্ট) সকালে ১০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। একপর্যায়ে আমাকে সে ধাক্কা দেয়। পরে প্রশাসনিক ভবনে গেলে সেখানেও আমাক লাঞ্চিত করে।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাজু মুন্সি বলেন, তারা দুজন (প্রধান প্রকৌশলী ও নিরাপত্তা প্রধান) বিভিন্ন অনিয়মের সাথে জড়িত। আমি এর প্রতিবাদ জানিয়েছি। আমি প্রতিবাদ জানানোয় আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ দিয়েছে। আমার প্রতিবাদের ভাষা একটু বাজে।

রাজু মুন্সি আরও বলেন, অভিযোগ দিছে সমস্যা নাই। আমি তো জামায়াত-শিবির-বিএনপি না। আমার নামে অভিযোগ সামনে আরও হবে। আমাকে পুলিশে নিয়ে গেলে শেখ হাসিনা ফোন দিয়ে ছাড়াবে। আমি শেখ হাসিনার রিজার্ভ ফোর্স। নির্বাচনে আমাকে কাজে লাগবে।

রাজু মুন্সির বিরুদ্ধে মামলা করে তাকে গ্রেফতারের আশ্বাস দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের আলাওল হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড.মোহাম্মদ ফরিদুল আলম বলেন, গুটিকয় নামধারী অপরাজনীতি করা ছাত্রের কারণে আমরা বিতর্কিত হতে পারি না। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করবে। মামলার জন্য কম্প্লেইন করা হয়েছে। ওসি মামলা নিবে বলেছে। বিশ্ববিদ্যালয় নিরাপত্তা প্রধান মামলা করবে।

তিনি আরও বলেন, উপাচার্য মহোদয়ের সরাসরি আদেশ, মামলা হলে তাকে পাওয়া মাত্রই গ্রেফতার করা হবে। প্রশাসনের উপর আঘাত বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ কোনভাবেই মেনে নিবে না।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোহাম্মদ নুরুল আজিম সিকদার ডেইলি দর্পনকে বলেন, রাজু মুন্সির বিরুদ্ধে নিরাপত্তা প্রধান বাদী হয়ে মামলা করেছে। তাকে গ্রেফতারের পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

You cannot copy content of this page