ক্যাম্পাসলিড নিউজ

ফুলের সমারোহ খুবির আঙ্গিনায়

খুবি প্রতিনিধি:

সকালের শীতের হাওয়ায় দুলছে বিভিন্ন রকমের ফুল। কোনোটা লাল, কোনোটা হলুদ, কোনোটা সাদা আবার কোনোটা খয়েরি। যে দিকে চোখ যায় শুধুই ফুলের সমাহার, যেন প্রকৃতি তার আপন সৌন্দর্যের ডালি নিয়ে বসেছে। প্রকৃতি ঘন কুয়াশার চাদরে আবৃত থাকলেও ফুলেল শয্যায় সজ্জিত হয়ে উঠেছে বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলের বিদ্যাপীঠ খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়। ১০৬ একরের ক্যাম্পাসে বাহারি প্রজাতি ও রং বেরঙের ফুলে ছেয়েছে।

চারদিকে হলুদ ফুলের মন মাতানো ঘ্রাণ আর মৌমাছির গুঞ্জনে মুখরিত হয়ে উঠেছে ক্যাম্পাস। সূর্যমুখী ফুলের হলদে ভাব দৃশ্যটি যে কারো মনকে আকৃষ্ট করে তোলে অনায়াসে। এছাড়াও রয়েছে জবা, রঙ্গন,বাগানবিলাস, সিলভিয়া, গোলাপ, চন্দ্রমল্লিকা, টগর, পিটুনিয়া, চামেলী, কসমস, শাপলা, সাদা স্নোবলসহ নানান ফুল।

বিশ্ববিদ্যালয় ও হল প্রশাসনের উদ্যোগে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে গড়ে তোলা হয়েছে বিভিন্ন ধরনের ফুলের বাগান। বিশেষ করে প্রশাসনিক ভবনে, অপরাজিতা, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব, খান জাহান আলী, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, খান বাহাদুর আহসানুল্লাহ হলের ভেতরেসহ নানান স্থানে হরেক রকম জাতের ফুল সৌরভে মাতিয়ে রেখেছে।

বিচিত্র সব ফুলের সমারোহ উপভোগ করতে শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি ভিড় জমায় বাইরের দশনার্থীরাও। বন্ধু-বান্ধব, পরিবার-পরিজন নিয়ে ঘুরতে ক্যাম্পাসে আসা তাদের কেউ ছবি তুলেন, কেউবা নীরবে প্রকৃতির সৌন্দর্য্যের স্বাদ উপভোগ করে ফিরে যান। বিশেষ করে বিকেলের দিকে বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখর থাকে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সবুজ ক্যাম্পাস।

“আমাদের ক্যাম্পাসের বিভিন্ন ফাঁকা জায়গায় এই বছর সূর্যমুখী ফুলের গাছ লাগানো হয়েছে যেগুলো আমাদের ক্যাম্পাসের সৌন্দর্য বর্ধন করছে। ফুলগুলোর সঠিক রক্ষণাবেক্ষণে আমাদের সচেতনতা ও কর্তৃপক্ষের নজরদারি আরও বৃদ্ধি করা উচিত বলে” মনে করেন দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী সঞ্চিতা সরকার।

পরিবারের সঙ্গে ঘুরতে আসা ইসরাত জাহান নামে এক দর্শনার্থী বলেন, “শিক্ষার এই প্রাঙ্গন প্রকৃতি ফুল-পাতা দিয়ে গড়া এক স্বর্গরাজ্য।”

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

You cannot copy content of this page