ক্যাম্পাসলিড নিউজ

জাবি ছাত্রলীগ সম্পাদক লিটনকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা 

জাবি প্রতিনিধি:

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান লিটনের বিরুদ্ধে জমিদখল, নৈতিক স্খলন, কর্মীদের সঙ্গে অশোভন আচরণসহ নানা অভিযোগে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছেন তার অনুসারীরা।

মঙ্গলবার (২৩ জানুয়ারি) দুপুর ২ টা ১৫ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন চত্বরে ৬ হলের সাধারণ সম্পাদকের অনুসারীদের পক্ষে এ ঘোষণা দেন শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সাজ্জাদ শোয়াইব চৌধুরী।

লিখিত বক্তব্যে অভিযোগ করে শোয়াইব বলেন, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হয়েও কর্মীদের খোঁজ না রাখা, কমিটির ২ বছর অতিক্রম হওয়ার পরও রাজনীতিতে সমন্বয়হীন, রাজনীতি বিকেন্দ্রীকরণ না করে নিজ হল কেন্দ্রীক চিন্তাচেতনা পোষণ করা, সবগুলো হলের কর্মীসভা করার পরেও হল কমিটি না দেয়া এবং এসব বিষয়ে কথা বলতে চাইলে নেতা-কর্মীদের সঙ্গে অশোভন আচরণ করা। এছাড়া সংগঠনের কর্মীদের নিয়ে চিন্তা না করে বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী এলাকার ‘জমি দখল’ এর মত ব্যক্তিগত স্বার্থ নিয়ে বেশি ব্যস্ত থাকা।

তিনি বলেন, “এ সকল গুরুতর অভিযোগ এবং নৈতিক স্খলনের প্রতিবাদে আমরা তাকে এই মুহূর্ত থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করছি।”

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে লিটন বলেন, ‘ বিষয়টি সম্পর্কে আমি অবগত না। আমি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পর থেকেই ক্যাম্পাসেই অবস্থান করছি। যোগাযোগের চেষ্টা করে আমাকে না পাওয়ার বিষয়টি সম্পূর্ণ অবান্তর। এছাড়া অন্য কোন অভিযোগ থাকলে তাও জানাতে পারতো। আর জমি দখলের কোন প্রমাণ থাকলে তারা তা দেখাতে পারে। আমি এ নিয়ে তাদের সাথে বলার চেষ্টা করছি।’

এছাড়াও, নিজের বান্ধবীকে শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার ব্যাপারে প্রশাসনের উপর চাপ সৃষ্টিসহ বিভিন্ন গুঞ্জনের অভিযোগ আসে।

উল্লেখ্য, ঘোষণা দেওয়ার পূর্বে তার অনুসারীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন চত্বর থেকে মিছিল নিয়ে বের হয়ে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়কে মিছিল করে আবার পরিবহন চত্বরে গিয়ে শেষ করেন। মিছিলে ছয়টি হলের প্রায় দুইশতাধিক নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন। হলগুলো হলো- শহিদ সালাম-বরকত হল, শহীদ রফিক-জব্বার হল, বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হল, আল-বেরুনী হল, আ.ফ. ম কামালউদ্দিন হল, মীর মশাররফ হোসেন হল।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

You cannot copy content of this page