ক্যাম্পাসলিড নিউজ

বাকৃবিতে ৩০তম বিএসভিইআরের বৈজ্ঞানিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

বাকৃবি প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) বাংলাদেশ সোসাইটি ফর ভেটেরিনারি অ্যাডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চের (বিএসভিইআর) ৩০তম বার্ষিক বৈজ্ঞানিক সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবারের সম্মেলনের প্রতিপাদ্য – ‘স্মার্ট ভেটেরিনারি এডুকেশন অ্যান্ড ওয়ান হেলথ’।

শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শির্পাচার্য জয়নুল আবেদিন মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বাকৃবির সার্জারি ও অবস্টেট্রিকস বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে সাবেক উপাচার্য এবং বাংলাদেশ অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিলের সদস্য অধ্যাপক ড. এম. গোলাম শাহি আলম এ বছর সম্মেলনে ‘বার্ষিক লেকচার অ্যাওয়ার্ড’ পেয়েছেন।

বিএসভিইআর এর সভাপতি অধ্যাপক ড. ফরিদা ইয়াসমীন বারির সভাপতিত্বে ও বিএসভিইআর এর সাধারণ সম্পাদক ড. মো. আরিফুল ইসলামের সঞ্চলনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ড. এম. গোলাম শাহি আলম। সম্মেলনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে ছিলেন বাকৃবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমদাদুল হক চৌধুরী।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাকৃবির ভেটেরিনারি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল আউয়াল, কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশনের (কেজিএফ) সিনিয়র বিশেষজ্ঞ নারেশ চন্দ্র দেব বার্মা, ইন্টার এগ্রোভেট বিডি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. এ. কে. এম খসরুজ্জামান।

বাকৃবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমদাদুল হক চৌধুরী বলেন, স্মার্ট কারিকুলাম, স্মার্ট গ্রাজুয়েট ও স্মার্ট খামারির মাধ্যমে দেশের কৃষির উন্নয়ন সম্ভব। বিএসভিইআর ভেটেরিনারি শিক্ষা ও গবেষণা উন্নয়নে কাজ করে। স্মার্ট ভেটেরিনারি তৈরিতে যুগোপযোগী কারিকুলামের আওতায় আনতে হবে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান বিশ্ব উৎপাদনশীল কৃষি থেকে গুণগত কৃষির দিকে ঝুঁকছে। কৃষিতে চতুর্থ শিল্প বিল্পব আনতে প্রযুক্তি নির্ভর স্মাট কৃষির বিকল্প নেই।

অধ্যাপক ড. এম. গোলাম শাহি আলম বলেন, ভেটেরিনারি গ্রাজুয়েটদের আরও দক্ষতাসম্পন্ন হতে হবে। দক্ষতা বাড়াতে না পারলে আমাদের গ্রাজুয়েটরা আন্তর্জাতিক কর্মবাজারে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে পারবেন না। এজন্য আমাদের ছাত্রদের বেসিক ডিজিটাল স্কিল, কমিউনিকেশন স্কিল, পারস্পরিক সহযোগিতা, নেতৃত্ব গুণাবলির বিকাশ ঘটাতে হবে।

বিএসভিইআর আয়োজক কমিটি সূত্রে জানা যায়, সম্মেলনটিতে দেশের ৪০০ জন ভেটেরিনারি গবেষক, শিক্ষাবিদ, মাঠপর্যায়ের ভেটেরিনারিয়ান, উদ্যোক্তা ও নীতিনির্ধারকরা অংশ নিয়েছেন। একটি বার্ষিক বক্তৃতাসহ দুইটি পূর্ণাঙ্গ বক্তৃতা, একটি মূল প্রবন্ধ, ৬৮টি মৌখিক গবেষণা প্রবন্ধ এবং ৭৮টি পোস্টার সম্মেলনে উপস্থাপন করা হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

You cannot copy content of this page