ক্যাম্পাস

লিও ক্লাবের উদ্যোগে তিন দেশের মধ্যে সাংস্কৃতিক বিনিময় অনুষ্ঠিত

বাকৃবি প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) বাংলাদেশ, নেপাল ও মালয়েশিয়ার প্রায় ১৫০ জন শিক্ষার্থীদের মধ্যে এক সাংস্কৃতিক বিনিময় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (৮ মার্চ) সকাল ৯টায় লায়ন্স ক্লাব অব ঢাকা ময়মনসিংহ হেরিটেজ জেলা ৩১৫ এ২ এর অর্থায়নে ও বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় লিও ক্লাবের আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ের চাষি ভবনে অনুষ্ঠানটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠিত হয়।

এরপর বিকাল ৩টায় তিন দেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্যে দিয়ে সাংস্কৃতিক বিনিময়ের মূল অনুষ্ঠান শুরু হয়। শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ দেশের ঐতিহ্যবাহী পোষাক, খাবার, শিল্প, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি প্রদর্শন করে।

এসময় বাকৃবির লিও ক্লাবের উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. কে.এইচ.এম নাজমুল হুসাইন নাজির বলেন, সমৃদ্ধিশালী বাংলাদেশের সংস্কৃতি বহির্বিশ্বে প্রচারের উদ্দেশ্যেই আয়োজনটি করা হয়েছে। এ আয়োজনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা একে অপরের দেশের সংস্কৃতি সম্পর্কে জানতে পারবে।

তিনি আরো বলেন, বিশ্বের প্রতিটি দেশই চায় তাদের সংস্কৃতি অন্যান্য দেশে প্রচার হোক। বাকৃবিতে প্রতিবছরই বিদেশী শিক্ষার্থী পড়াশোনা করতে আসে। ৩০ জন বিদেশী শিক্ষার্থী আমাদের লিও ক্লাবের সাথে সক্রিয়ভাবে যুক্ত আছে। তাদের মাধ্যমে দেশকে বহির্বিশ্বে ভালোভাবে প্রচার করতেই এই আয়োজন।

লায়ন্স ক্লাবের কার্যক্রম সম্পর্কে লায়ন্স ক্লাব অব ঢাকা ময়মনসিংহ হেরিটেজের সভাপতি লায়ন ইঞ্জি. সিরাজুল ইসলাম এনামুল বলেন, লায়ন্স ক্লাব জাতিসংঘ স্বীকৃত সেবামূলক একটি প্রতিষ্ঠান। ক্ষুধা, দৃষ্টিশক্তি, শিশু ক্যান্সার, ডায়াবেটিস ও পরিবেশ নিয়ে লায়ন্স ক্লাব সারা বিশ্বে কাজ করে যাচ্ছে। এসব কাজের পাশাপাশি লায়ন্স ক্লাব ও লিও ক্লাবের উদ্যোগে দরিদ্র মানুষদের আত্ম কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি, গরু ছাগলের বিনামূল্যে চিকিৎসা ও ভ্যাকসিন প্রদান, বয়স্কদের বিনামূল্যে চোখের ছানি অপারেশন, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশু ও পথশিশুদের চিকিৎসা, খাবার ও সাহায্য করা হয়। এছাড়া গর্ভবতী মা ও কিশোরীদের জন্যও সেবা কার্যক্রম চালু রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, দেশের মধ্যে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় লিও ক্লাবেই একমাত্র বিদেশীদের অংশগ্রহণ রয়েছে। তাদের মাধ্যমেই লিও ক্লাব ও লায়ন্স ক্লাবের মানব কল্যাণমূলক কার্যক্রম সহজেই আন্তর্জাতিক আঙ্গিনায় ছড়িয়ে পড়বে।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বাকৃবির ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল আউয়াল, ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. তানভীর রহমান, ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. মো. হারুন-অর-রশিদ, অধ্যাপক ড. বাপন দে এবং সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. গোলজার হোসেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

You cannot copy content of this page