ক্যাম্পাস

বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উজ্জীবিত কবি মোস্তফা তোফায়েল হোসেন

মো. সবুজ মিয়া, বেরোবি প্রতিনিধি:

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে আদর্শ করে, বঙ্গবন্ধুর ভাষণে অনুপ্রাণিত হয়ে তাঁকে নিয়ে একক কবিতা রচনা শুরু করেন কবি মোস্তফা তোফায়েল হোসেন। তিনি একাধারে কবি, সাহিত্যিক, প্রাবন্ধিক, লেখক, সাহিত্যসমালোচক ও গবেষক।

তিনি ১৯৫৪ সালে কুড়িগ্রাম জেলার বেলগাছা ইউনিয়নে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি বর্তমানে রংপুর শহরের ইসলামপুর,হনুমানতলায় বসবাস করেন।  পেশাগত জীবনে তিনি ব্যাংকে চাকুরি করেন এবং বর্তমানে তিনি ইউরোপিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ (ঢাকা) ইংরেজি সাহিত্যে অধ্যাপনা করছেন। ১৯৯৬ সালে কুড়িগ্রাম জেলার ইতিহাস ও সংস্কৃতিক,২০১১ সালে বৃহত্তর রংপুরের ইতিহাস নিয়ে বই প্রকাশ করেন। সেই সাথে ইংরেজি সাহিত্যে শেক্সপিয়ারের হ্যামলেট,ম্যাকবেথ, জুলিয়াস সিজার ও রবার্ট ফ্রাস্টের কবিতা ও সনেট সমগ্রর অনুবাদক হিসেবে কাজ করেছেন।

মহা নায়ক আসিবে ফিরে ধানমন্ডি পাড়ে। উৎফুল্ল জনতার আবিশ্রম ধ্বনিতে দিকে দিকে সমতার স্লোগান আর উত্তাল আবেগে। ১৯৪৭ থেকে ১৯৭১। টানা ২৪ বছরের সংগ্রামে এক মহাকাব্যের আগমন, যেই কাব্যের পরতে পরতে কখনো ছয় দফা,কখনো বাঙ্গালীর মায়া,ভালবাসা কখনো সরাসরি ঘোষণার মধ্যদিয়ে ১৫ কোটি বাঙ্গালীর ঐক্য গড়ে তুলেছিলেন একজন মহা নায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তার জন্ম থেকে মৃত্যু পযন্ত অসংখ্য গান, কবিতা,গল্প, ছড়ার জন্ম হয়েছে। তেমনি একজন বঙ্গবন্ধু প্রমিক কবি, সাহিত্যিক জাতির পিতাকে নিয়ে একক তিনটি কাব্যগ্রন্থে বঙ্গবন্ধুকে মহাকাব্যিক নায়করূপে উপস্থাপন করে প্রকাশ করেছেন যেখানে ১৫০টির বেশি কবিতা ও বাংলা সাহিত্যে যুদ্ধকবিতা প্রকাশিত করেছেন। তিনিই প্রথম এমন দুটি কাজ সফলভাবে সম্পাদন করতে পেরেছেন।

তার তিনটি কাব্যগ্রন্থগুলোর প্রথম একজন প্রমিথিউজ, দ্বিতীয় বঙ্গবন্ধুবাংলাদেশ তৃতীয় নৈঃশব্দ্য থেকে ভাষায় সংগ্রামে শব্দে বইটি। তার এই তিনটা বইয়ে জাতির পিতার মুক্তি, সংগ্রাম, স্বপ্ন, জনপ্রিয়তা,অসম সাহসিকতা, নেতৃত্ব ও কুসুমকোমল হৃদয় নিয়ে নানান বর্ণনায় তুলে ধরেছেন। তার তিনটা বই পাঠক মহলে অনেক সাড়া তুলেছেন।

মহান মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লিখেন অনেক কবিতা, কাব্য ও প্রবন্ধ। তার রচিত দেড় শতাধিক কবিতার মধ্যে ৩৫ টি কবিতা আবৃত্তি করেন একুশে পদকপ্রাপ্ত কবি ও সাহিত্যিক ভাস্কর বন্দোপাধ্যয়। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লেখেন একজন প্রমিথিউস দেড় শতাধিক সংস্করণ বের হয়েছে।

তার লেখা একাধিক বই উৎসর্গ করেন বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের।

কবি মোস্তফা তোফায়েল হোসেন বলেন, আমার বাকি জীবনটুকুই বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ নিয়ে গবেষণা করে কাটিয়ে দিতে চাই। একক তিনটি কাব্যগ্রন্থ প্রকাশ করেছি জাতির পিতার প্রতি তীব্র ভালোবাসা থেকেই একক ১৫০টির বেশি কবিতা প্রকাশ করেছি। আমিই প্রথম সফলভাবে সম্প্রাদন করতে পেরেছি। বঙ্গবন্ধু শুধু মুখে নয়, বঙ্গবন্ধু থাকুক সারা পৃথিবী জুড়ে এমন ধরনের কাজ আমাদের সবাইকে করতে হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

You cannot copy content of this page