সারাদেশ

‘সুফিরা মানুষকে নিঃস্বার্থভাবে ভালোবাসতে পারেন বলেই তাদের মাধ্যমে ইসলামের বিকাশ ঘটে’ – সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

মাইজভাণ্ডার শরীফের সাজ্জাদানশীন, আওলাদ-এ-রাসুল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম), শাহ্সুফি সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল হাসানী মাইজভাণ্ডারী বলেছেন, প্রিয় নবিজী (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) এর আদর্শ, পথনির্দেশনার মাঝে মানবজাতির জন্য এ পৃথিবী ও পরকালীন জীবনের মুক্তি নিহিত। ইসলাম কোন নির্দিষ্ট জাতি-গোষ্ঠীর জন্য সীমাবদ্ধ নয়। তাই আমাদের প্রিয় নবিজী (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) জাতি-বর্ণ-ধর্ম-শ্রেণী-পেশা নির্বিশেষে সকল মানুষকে উদার হৃদয়ের সাথে আলিঙ্গন করেছেন। মানুষের অন্তর জয় করেছেন বলেই আজ বিশ্বে এত মানুষ তার প্রতিষ্ঠিত দ্বীন অনুসরণ করছে। সুফি সাধকগণও এই মানবপ্রেমের নীতির মাধ্যমে ইসলামের প্রচার-প্রসারে সফল হয়েছেন। তাদের নিকটে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অমুসলিমরা এসেছেন, আসছেন।

সুফিদের সম্পদ হল তাদের উত্তম চরিত্র, উদারনৈতিক চেতনা, ন্যায়পরায়ণতা, নির্মোহ জীবনযাপন। ফলে সহজেই তারা মানুষের অন্তরে স্থান করে নেন। শায়খুল ইসলাম, হুযুর গাউসুল ওয়ারা হযরাতুলহাজ্ব আল্লামা শাহ্সুফি সাইয়্যিদ মইনুদ্দীন আহমদ আল হাসানী মাইজভাণ্ডারী (কঃ) তেমনই একজন মহাপুরুষ ছিলেন। তিনি নিরন্তর প্রচেষ্টার মাধ্যমে বাংলাদেশের কোণে কোণে গিয়ে ইসলাম, তরিকতের খেদমত করেছেন।একইসাথে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে ইসলামের শান্তি, সম্প্রীতির দর্শন প্রচারে ভূমিকা রেখেছেন। বিশ্বজুড়ে তার লক্ষ লক্ষ আশেক গড়ে উঠেছেন, যারা এ নিঃস্বার্থ ভালোবাসার চেতনা সমাজে ছড়িয়ে দিতে কাজ করছেন। সুফিবাদের মাধ্যমে এই পাক-ভারত উপমহাদেশে যেমন ইসলামের বিকাশ ঘটেছে, তেমনি এ ভূখণ্ড সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও বিভিন্ন জাতি-ধর্মের শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের উজ্জ্বল উদাহরণ হয়েছে। বর্তমান বিশ্বে আমরা দেখছি, উন্নত দেশ বা সভ্যতা হিসেবে যারা দাবী করে, সে সব স্থানেও বর্ণ বৈষম্য, হানাহানি লেগেই আছে৷ মানুষের প্রতি মানুষের সহিষ্ণুতা, সহমর্মিতা হ্রাস পাচ্ছে এবং ঘৃণা-ক্রোধের ভয়ংকর আগুনের বিস্তার ঘটছে। এ ক্ষেত্রে সুফি সাধকদের নিঃস্বার্থ ভালোবাসার দর্শন যথাযথ সমাধান দিতে পারে।

গতকাল (৭ মে) গাজীপুরের কাপাসিয়ায় ‘শায়খুল ইসলাম, হুযুর গাউসুল ওয়ারা হযরাতুলহাজ্ব আল্লামা শাহ্সুফি সাইয়্যিদ মইনুদ্দীন আহমদ আল হাসানী মাইজভাণ্ডারী (কঃ) স্মরণে আয়োজিত সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আলোচনা করেন। আমজাদ খাঁনের সভাপতিত্বে বীর মুক্তিযোদ্ধা, খলিফাবৃনদ,স্থানীয় জনপ্রতিনিধিবৃন্দ, বিশিষ্ট ওলামায়ে কেরাম, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, আঞ্জুমান-এ-রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভাণ্ডারীয়া ও মইনীয়া যুব ফোরামের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দোজাহানের বাদশাহ্ হুযুরপুর নূর, আহমদ মুজতবা, মুহাম্মদ মুস্তফা, প্রিয় নবিজী (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) এবং সম্মানিত আহলে বাইতে রাসুল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) গণের প্রতি সশ্রদ্ধ সালাতু সালাম নিবেদন শেষে মাহ্ফিলের সমাপনী মুনাজাতে বিশ্ববাসীর কল্যাণে প্রার্থণা করেন শাহ্সুফি সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল হাসানী ওয়াল হোসাইনী মাইজভাণ্ডারী।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

You cannot copy content of this page