সারাদেশ

বাংলাদেশ ইন্সপেক্টর অব ট্যাকসে্স এসোসিয়েশনের (বিটা) নেতৃবৃন্দের বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদন:

বাংলাদেশ ইন্সপেক্টর অব ট্যাকসে্স এসোসিয়েশনের (বিটা) নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দ ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে বৃহস্পতিবার শ্রদ্ধা নিবেদন করেন৷ বিটার নবনির্বাচিত সভাপতি মো. আমিনুল ইসলাম আকাশ ও মহাসচিব সহিদুজ্জামান সোহেল নেতৃত্বে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়৷

গত বুধবার রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে বাংলাদেশ ইন্সপেক্টর অব ট্যাক্সেস অ্যাসোসিয়েশনের (বিটা) সাধারণ সভায় সকল করপরিদর্শকগনের উপস্থিতে ট্যাক্স ইন্সপেক্টরদের মতামতের ভিত্তিতে কার্যনির্বাহী কমিটির ৪১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। এতে সংগঠনের মো. আমিনুল ইসলাম আকাশ সভাপতি ও সহিদুজ্জামান সোহেল মহাসচিব নির্বাচিত হন। এছাড়া আবির হোসেন চাকলাদার কার্যকরী সভাপতি এবং এম ওবায়দুর রহমান শাহীন কার্যকরী মহাসচিব নির্বাচিত হন। এছারা সহ-সভাপতি লোকমান আহমেদ, শেখ মো. মঞ্জুরুল হক, এনায়েত হোসেন, মো. আরিফুর রহমান, রাজিয়া সুলতানা, গোলাম মোক্তাদির ও জাকির হোসেন, যুগ্ম মহাসচিব মো. সামিউল আলম, মো. জাহাঙ্গীর আলম ও মো. ওবায়দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ হারুন-অর-রশিদ, কোষাধ্যক্ষ মো. শামসুর রহমান, সহ কোষাধ্যক্ষ এস এম মাহতাব হোসেন, প্রকাশনা সম্পাদক মো. গোলাম মোক্তাদির খান, দপ্তর সম্পাদক মো. শহিদুল ইসলাম, উপ দপ্তর সম্পাদক নজরুল ইসলাম তারেক, আইন বিষয়ক সম্পাদক মাইনুদ্দিন আহম্মেদ, প্রচার সম্পাদক তৌহিদুল হক, সহ প্রচার সম্পাদক মোহাম্মদ রাসেল মিয়া; স্বাস্থ্য ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম; ত্রাণ, দুযোর্গ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল মাজেদ, শিক্ষা, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মো. ইয়াসিন আলী,তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মহিউদ্দিন খান, গবেষণা সম্পাদক হেদায়েত উল্লাহ; নারী ও শিশু বিষয়ক সম্পাদক রোকসানা আক্তার, কার্যনির্বাহী সদস্য সাইদুর রহমান, সন্তোষ কুমার রায়, মো. কামরুল হাসান, মুন্সী মো. শাহিদুজ্জামান, মো. শাহ আলম, মো. সাহেব আলী, মুসাম্মৎ ছালেনুর, মো. আবু হানিফ, মোহাম্মদ যায়নুল আবেদীন, রমেন্দ্র নাথ গায়েন ও নাজমুল হুদা নির্বাচিত হয়।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) অধীন আয়কর অনুবিভাগে কর্মরত কর পরিদর্শকরা ১০ম গ্রেডের কর্মকর্তাদের আইনসঙ্গত ন্যায্য দাবি, পদোন্নতি, পারস্পারিক সহযোগিতা, সহমর্মিতা, যোগাযোগ বৃদ্ধি ও সদস্যদের কল্যানে এই সংগঠন করা হয়। এছাড়া কর পরিদর্শক ও সদস্যদের পরিবারের বিপদ-আপদ, দুযোর্গ-দুর্বিপাকে, মৃত্যুতে আর্থিক সহযোগিতা করা, সম্মিলিতভাবে চাকরিকালীন উন্নত জীবনযাত্রা অর্জনের জন্য এই সংগঠনের পথচলা৷

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

You cannot copy content of this page