জাতীয়লিড নিউজ

আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহার উপকমিটির সদস্য ড. শামসুল আলম

ফারুক হোসেন:

দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে ইশতেহার প্রণয়ন উপকমিটি করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। এ কমিটির সদস্য মনোনিত করা হয়েছে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলমকে।

কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে দলটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুর রাজ্জাক ও সদস্যসচিব হয়েছেন তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সেলিম মাহমুদ।
নতুন এ কমিটি আজ বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের ইশতেহার প্রণয়ন উপকমিটি প্রথম বৈঠকে বসবে বলে আওয়ামী লীগের উপদপ্তর সম্পাদক সায়েম খান স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে যাওয়ার আগে নির্বাচনী ইশতেহার প্রণয়ন উপকমিটি গঠন করেন। এ কমিটিতে আহ্বায়ক ও সদস্য সচিবসহ মোট ২৬ জনকে রাখা হয়। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন ড. মসিউর রহমান, ড. অনুপম সেন, ড. সাত্তার মন্ডল, ড. বজলুল হক খন্দকার, অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, ড. শামসুল আলম, হাছান মাহমুদ, দীপু মনি, শ ম রেজাউল করিম, শেখর দত্ত, ড. মাকসুদ কামাল, ড. মাহফুজুর রহমান, অধ্যাপক খায়রুল হোসেন, অধ্যাপক সাদেকা হালিম, ওয়াসিকা আয়েশা খান, বিপ্লব বড়ুয়া, সাজ্জাদুল হাসান, তারানা হালিম, জুনায়েদ আহমেদ পলক, মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, মোহাম্মদ এ আরাফাত, সায়েম খান, সাদিকুর রহমান চৌধুরী ও সাব্বির আহমেদ প্রমুখ।

আওয়ামী লীগ সাধারণত দলের ঘোষণাপত্র অনুযায়ী নির্বাচনী ইশতেহার তৈরি করে। গত ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত দলটির ২২তম জাতীয় সম্মেলনের স্লোগান ছিল— ‘উন্নয়ন অভিযাত্রায় দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের উন্নত, সমৃদ্ধ ও স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়।’

২০৪১ সালের মধ্যে ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ গড়ার কথা দলটির নতুন ঘোষণা পত্রে অনুমোদন হয় ওই সম্মেলনে। সেই আদলেই আগামী নির্বাচনে দলীয় ইশতেহার তৈরি করা হবে বলে জানা গেছে।

ইশতেহার প্রণয়ন উপকমিটির সদস্য পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম সাংবাদিদের জানান, দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে ইশতেহারে বাংলাদেশের মানুষের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি, জীবনমান উন্নতি, সুখী-সমৃদ্ধ রাষ্ট্র বিনির্মাণে প্রত্যয়ের মূল লক্ষ্য থাকবে। বাংলাদেশকে স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে কল্যামুখী রাষ্ট্রে রূপান্তর করার রূপরেখা থাকবে।’

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

You cannot copy content of this page