খেলাধুলা

মেসিকে রেকর্ড অফার সৌদির

স্পোর্টস ডেস্ক:

শেষ পর্যন্ত কী চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর পথ অনুসরণ করছেন লিওনেল মেসি? দ্য টেলিগ্রাফের এক প্রতিবেদনে তেমন ইঙ্গিতই পাওয়া যাচ্ছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, চড়া দামে মেসিকে কেনার জন্য তোড়জোড় চালাচ্ছে সৌদি। আর সেই প্রস্তাব নিয়ে নাকি মেসির এজেন্ট তার বাবা জর্জ মেসির সঙ্গে আলোচনাও চলছে।

সম্প্রতি সৌদি আরব সফরে গিয়ে পিএসজির নিষেধাজ্ঞায় পড়েছেন মেসি। অনুমোদন না থাকা সত্ত্বেও শৃঙ্খলাভঙ্গ করায় তারকা এ ফুটবলারকে দুই সপ্তাহের জন্য সব ধরণের কার্যক্রম থেকে নির্বাসনে পাঠিয়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। যা দলটির ইতিহাসেও বিরল ঘটনা। এরপরই জানা যায়, পিএসজিতে পাট চুকাতে চলেছেন মেসি।

মেসির পিএসজি ছাড়তে চাওয়ার বিষয়টি জানিয়েছেন ট্রান্সফার বিষয়ক সাংবাদিক ফ্যাব্রিজিও রোমানো। নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি বলেন, চলতি মৌসুম শেষে মেসি পিএসজি ছাড়তে যাচ্ছেন। মেসির বাবা জর্জ মেসি নাকি এক মাস আগেই এ ব্যাপারে ফরাসি ক্লাবটির সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন।

এর আগে সংবাদমাধ্যম লেকুইপে জানায়, মেসির অনুমোদনহীন সৌদি যাত্রাকে ‘মারাত্মক ভুল’ হিসেবে দেখছে পিএসজি। এর আগে থেকেই ক্লাবটির সঙ্গে ৩৫ বছর বয়সী মেসির চুক্তি নবায়ন না করার আলোচনা চলছিল। এর ভেতরই মেসির নিষেধাজ্ঞা আসায়, হয়তো তিনি ফরাসিদের হয়ে আর মাত্র তিনটি ম্যাচ খেলতে পারেন।

মেসির ভবিষ্যৎ গন্তব্য কোথায় হতে পারে তা নিয়ে জল্পনার মধ্যেই একেবারেই অজানা তথ্য জানালো ইংলিশ সংবাধ্যম দি টেলিগ্রাফ। সংবাদমধ্যমটি জানিয়েছে, মেসিকে দলে টানতে বার্ষিক ৪০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেতন প্রস্তাব করেছে সৌদি, যা রোনালদোরও বার্ষিক বেতনের প্রায় দ্বিগুণ। চুক্তিতে রাজি হয়ে মেসি যদি সৌদিতে ফেরেন, তবে ফুটবল ইতিহাসে সবচেয়ে দামী ফুটবলার হবেন তিনি।

এর আগে আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যম টিওয়াইসি স্পোর্টস জানিয়েছিল, মেসিকে বছরে ৪০ কোটি (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৪ হাজার ৬১৯ কোটি ৪৪ লাখ টাকা) ইউরোর বেশি পারিশ্রমিকের প্রস্তাব দিয়েছে সৌদির ক্লাব আল-হিলাল।

মেসির সৌদি যাত্রা নিয়ে ফুটবল দুনিয়ায় যখন তোলপাড়, তখন আরেক খবর দিয়েছে স্প্যানিশ রেডিও স্টেশন অন্দা চেরো। সংবাদমাধ্যমটি বলছে, মেসি শেষ পর্যন্ত সৌদি ক্লাব আল হিলালে যাবেন, তবে তার আগে বার্সেলোনায় এক বছর খেলে যাবেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

You cannot copy content of this page