ক্যাম্পাসলিড নিউজ

জাবিতে শিক্ষক নিয়োগে রাজনৈতিক ক্ষমতার অপব্যবহার, সহকারী প্রক্টরের শাস্তি দাবি

জাবি প্রতিনিধি: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) সহকারী প্রক্টরের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগের রাজনৈতিক ক্ষমতার অপব্যবহার করে শিক্ষক নিয়োগ ও ছাত্রীদের সাথে যৌন সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগ উঠেছে।

অভিযুক্ত শিক্ষক হলেন, পাবলিক হেলথ অ্যান্ড ইনফরমেটিক্স বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাহমুদুর রহমান জনি।

বৃহস্পতিবার (১ডিসেম্বর) বেলা আড়াইটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন কলা ভবনের শিক্ষক লাউঞ্জে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ করেন শিক্ষকদের একাংশ। এসময় তারা অভিযুক্ত সহকারী প্রক্টরের শাস্তি দাবি করেন।

এসময় নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মানস চৌধুরী লিখিত বক্তব্যে তিন দফা দাবি পেশ করেন। দাবিগুলো হলো: ৮ ডিসেম্বরের মধ্যে স্ট্রাকচারাল কমিটি গঠন, প্রাথমিক সত্যতা থাকায় বিধি অনুযায়ী অভিযুক্তকে সকল পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত এবং তদন্ত সাপেক্ষে তাকে চাকুরি থেকে অব্যাহতি দিতে হবে।

সংবাদ সম্মলনে অভিযুক্ত জনির বিরুদ্ধে ২টি অভিযোগ করেন শিক্ষকরা। প্রথম অভিযোগটি হলো শিক্ষক ও সহকারী প্রক্টরের পদ ব্যবহার করে ও রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে ছাত্রীদের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপন এবং তাকে শিক্ষক হিসেবে নিয়োগে প্রভাব বিস্তার। অন্য অভিযোগটি হলো, আরেক ছাত্রীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপন ও তাকে গর্ভপাত ঘটাতে বাধ্য করা।

এসময় ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক আনিছা পারভীন জলি বলেন, ‘আগামী ৮ই ডিসেম্বরের সিন্ডিকেটে স্ট্রাকচারাল কমিটি গঠন করতে হবে, প্রাথমিক সত্যতা থাকায় অভিযুক্তকে সকল পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা এবং তদন্ত সাপেক্ষে জনিকে চাকুরি থেকে অব্যাহতি দিতে হবে।’

এর আগে, অভিযুক্ত শিক্ষক ও তার নিজ বিভাগের ছাত্রীদের সাথে অনৈতিক সম্পর্কের ছবি ও অডিও ক্লিপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এছাড়া, সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত ওই শিক্ষিকার সাথে “অন্তরঙ্গ” ছবি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন দেয়ালে পোস্টারিং করা হয় ও ভাইরাল হওয়া অডিও ক্লিপে শোনা যায়, এক ছাত্রীকে জোড়পূর্বক গর্ভপাতে বাধ্য করা হচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে ফর্মেসি বিভাগের অধ্যাপক মো: সোহেল রানা, দর্শন বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ কামরুল আহসান, পরিবেশ বিজ্ঞানের অধ্যাপক জামাল উদ্দিন রুনু, উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক শামীমা নাসরীন জলি, নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ফাহিমা আল ফারাবী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

You cannot copy content of this page